প্রধানমন্ত্রী জন ধন যোজনা | Pradhan Mantri Jan Dhan Yojana in Bengali

Updated on February 25th, 2024 ||

প্রধানমন্ত্রী জন ধন যোজনা (PMJDY) হোল আর্থিক অন্তর্ভুক্তির জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের করা উদ্যোগ যা ২০১৪ সালের আগস্ট মাসে শুরু হয়েছিল। এই প্রকল্পের উদ্দেশ্য হল দুর্বল এবং নিম্ন আয়ের গোষ্ঠীগুলিকে জাতীয় স্তরের আর্থিক পরিষেবার সুবিধাগুলির সাথে যুক্ত করা। PMJDY-এর মাধ্যমে, ব্যক্তিরা ব্যাঙ্কিং, অর্থ জমা, অর্থ প্রেরণ, পেনশন এবং ক্রেডিট বীমার মতো পরিষেবাগুলির সুবিধা নিতে পারবেন।

প্রধানমন্ত্রী জন ধন যোজনাটি জনসাধারণের মধ্যে ব্যপক সারা ফেলেছে এবং গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস এই যোজনার ব্যাপকতার স্বীকৃতি দিয়েছে। তাঁরা রেকর্ড করেছেন যে “আর্থিক অন্তর্ভুক্তি অভিযানের অংশ হিসাবে এক সপ্তাহে সবচেয়ে বেশী মোট ১,৮০,৯৬,১৩০ টি ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট খোলা হয়েছে এবং ভারত সরকারের আর্থিক পরিষেবা বিভাগের অন্তর্গত হয়েছে।”

২০১৫ সালের প্রজাতন্ত্র দিবস অর্থাৎ ২৬শে জানুয়ারী পর্যন্ত লক্ষমাত্রা রাখা হয়েছিল ৭.৫ কোটি কিন্তু পরিবর্তে তার অনেক বেশী মোট ১২.৫৪ কোটি অ্যাকাউন্ট খোলা হয় এবং মোট ১০,০০০ কোটি টাকার বেশী আমানত জমা হয়। অ্যাকাউন্টগুলির মধ্যে ৬০% খোলা হয়েছে গ্রামীণ এলাকায় এবং ৪০% শহরে হয়েছে। মহিলা অ্যাকাউন্ট হোল্ডারদের মোট শেয়ার রয়েছে প্রায় ৫৬%।

Table of Contents

প্রধানমন্ত্রী জন ধন যোজনা একাউন্ট কি?

PMJDY একাউন্টের মাধ্যমে ভারতের প্রতিটি পরিবারকে ব্যাঙ্কিং সুবিধাগুলির সাথে যুক্ত করান হয়েছে যাতে তাঁরা আর্থিক সাক্ষরতা, ক্রেডিট, বীমা এবং পেনশন সুবিধাগুলি উপলব্ধ করতে পারেন। এর জন্য পরিবার প্রতি অন্তত একটি ব্যাঙ্ক একাউন্ট থাকা আবশ্যিক।

এটি শহুরে এবং গ্রামীণ উভয় অঞ্চলেই সমান কাজ করে এবং যারা একাউন্ট খুলবেন তাদের দেশীয় ডেবিট কার্ড (RuPay কার্ড) দেওয়া হবে যার সাহায্যে সমস্ত এটিএম থেকে নগদ তোলার ক্ষেত্রে ব্যবহার করা যাবে। শূন্য ব্যালেন্সে যে কোন ব্যাঙ্কের শাখা বা বিজনেস করেসপন্ডেন্ট (ব্যাঙ্ক মিত্র) আউটলেটে একাউন্ট খোলা যাবে। একাউন্টধারীর সুবিধের জন্য বেসিক ফিচার ফোনেও ইউএসএসডি (USSD code) ব্যবহার করে মোবাইল ব্যাঙ্কিং সুবিধাও দেওয়া হয়েছে। তবে, যদি একাউন্ট ধারক চেক বই পেতে চান, সেক্ষেত্রে তাকে ন্যূনতম ব্যালেন্স বজায় রাখতে হবে।

Pradhan Mantri Jan Dhan Yojana In Bengali

প্রধানমন্ত্রী জন ধন যোজনার বিবরণ

যোজনার নামপ্রধানমন্ত্রী জন ধন যোজনা
যোজনার ধরণ কেন্দ্রীয় প্রকল্প
শুরুর তারিখ১৫ই আগস্ট ২০১৪
উদ্দেশ্যনিম্ন আয়ের গোষ্ঠীগুলিকে ব্যাঙ্কিং পরিষেবার মাধ্যমে আর্থিক সাক্ষরতা প্রদান যার ফলস্বরূপ সরকারী সাহায্যগুলি সরাসরি উপলব্ধ হবে
বয়স সীমাআবেদনকারীর বয়স কমপক্ষে ১০ বছর হতে হবে
সরকারী ওয়েবসাইটpmjdy.gov.in

প্রধানমন্ত্রী জন ধন যোজনার কৃতিত্ব

PMJDY এর উল্লেখযোগ্য কৃতিত্বগুলি নিচে দেওয়া হলঃ

  • ২০১৪ সালের আগস্ট মাসে শুরুর দিন থেকে ২০২৩ মে মাস পর্যন্ত PMJDY-এর অধীনে ৪৮.৯৩ কোটিরও বেশি সুবিধাভোগী অ্যাকাউন্ট তৈরি করিয়েছেন, যার পরিমাণ হোল প্রায় ₹১,৯৮,৩৩৮ কোটি টাকা।
  • PMJDY অ্যাকাউন্ট-ধারকদের প্রায় ৩২ কোটি RuPay কার্ড ইস্যু করা হয়েছে।
  • ২০২২ সালের জুন মাসের মধ্যে প্রায় ৫.৪ কোটি PMJDY অ্যাকাউন্ট-ধারক বিভিন্ন প্রকল্পের অধীনে সরকারের কাছ থেকে ‘সরাসরি সুবিধা স্থানান্তর’/’ডাইরেক্ট বেনিফিট ট্রান্সফার’ (DBT) উপলব্ধ হয়েছেন।
  • সারা দেশে ৮.৫০ লক্ষ ব্যাঙ্ক মিত্র শাখাবিহীন ব্যাঙ্কিং পরিষেবা প্রদান করছে।

প্রধানমন্ত্রী জন ধন যোজনা সুবিধা

এই যোজনায় আপনি নিম্নলিখিত সুবিধাগুলি পাবেনঃ

  • বীমা সুবিধাঃ PMJDY অ্যাকাউন্ট হোল্ডারদের ইস্যু করা RuPay কার্ডের সাথে ১ লক্ষ টাকার দুর্ঘটনা বীমা কভার (২৮.৮.২০১৮-এর পরে খোলা PMJDY অ্যাকাউন্টগুলিতে ২ লক্ষ টাকায় উন্নীত করা হয়েছে) এবং ৩০,০০০ টাকার জীবন বীমা পাওয়া যায়।
  • ঋণ সুবিধাঃ এই যোজনার অ্যাকাউন্টধারীদের ১০,০০০ টাকা পর্যন্ত ওভারড্রাফ্ট সুবিধা দেওয়া হয়েছে। অ্যাকাউন্ট খোলার ৬ মাস পর অ্যাকাউন্টধারক ঋণ নিতে পারবেন।
  • মোবাইল ব্যাঙ্কিং সুবিধাঃ সব ধরনের মানুষের কথা ভেবেই ব্যবস্থা করা হয়েছে যে সাধারন মোবাইল ফোনের মাধ্যমেই অ্যাকাউন্টধারী ব্যালেন্স চেক ও লেনদেন করতে পারবেন এবং ভারত জুড়ে সহজেই তহবিল স্থানান্তর করতে পারবেন।
  • রুপে কার্ডের (RuPay) সুবিধাঃ এই স্কিমের অ্যাকাউন্টধারককে একটি RuPay কার্ড দেওয়া হবে, যা তিনি এটিএম কার্ড হিসেবে ব্যবহার করতে পারবেন এবং ফলস্বরূপ দেশের বহু সংখ্যক মানুষ আর্থিক সাক্ষরতার সুবিধা লাভ করবেন।
  • জিরো ব্যালেন্সঃ PMJDY অ্যাকাউন্টে ন্যূনতম ব্যালেন্স রাখা বাধ্যতামূলক নয়।
  • সুদ লাভঃ এই স্কিমের অ্যাকাউন্টধারী তাদের জমা আমানতের ওপর সুদ পাবেন।
  • PMJDY অ্যাকাউন্টের আরেকটি সুবিধে হোল যে কোন সরকারি প্রকল্পের সুবিধা সরাসরি সুবিধাভোগীদের অ্যাকাউন্টে স্থানান্তরিত হতে পারে এবং এর জন্য কোন তৃতীয় পক্ষের প্রয়োজন নেই।
  • PMJDY স্কিমের মাধ্যমে অ্যাকাউন্টধারীরা পেনশন এবং অন্যান্য বীমা পণ্যগুলি সহজেই অ্যাক্সেস করতে পারেন।

জন ধন একাউন্ট খোলার নিয়ম

প্রধানমন্ত্রী জন ধন যোজনা একাউন্ট খুলতে আপনি যে কোনও ব্যাঙ্কে গিয়ে একটি আবেদন ফর্ম পূরণ করে একাউন্ট খুলতে পারেন। ১০ বছর বা তার বেশি বয়সের ব্যক্তিরা একটি PMJDY একাউন্ট খুলতে পারেন।

প্রধানমন্ত্রী জন ধন যোজনা ফর্ম ডাউনলোড করুন।

আবেদনপত্রের সাথে আপনাকে নিম্নলিখিত নথিগুলি উপস্থাপন করতে হবে-

  • পার্মানেন্ট একাউন্ট নম্বর (PAN) কার্ড
  • ভোটার আইডি কার্ড
  • আধার কার্ড

যদি আপনার কাছে উপরে উল্লিখিত ‘অফিসিয়ালি ভ্যালিড ডকুমেন্টস’ (OVD) কোনোটিও না থাকে, তবে সেক্ষেত্রে ব্যাঙ্ক আপনাকে কম-ঝুঁকিপূর্ণ ব্যক্তি হিসেবে বিবেচনা করলে আপনি PMJDY একাউন্ট খুলতে পারেন। সেক্ষেত্রে একাউন্ট খোলার জন্য আপনাকে নিম্নলিখিত নথিগুলির যেকোনো একটি জমা দিতে হবে-

  • একটি পরিচয়পত্র যাতে আপনার ছবি থাকবে এবং যা রাজ্য সরকারের বিভাগ, কেন্দ্রীয় সরকার বিভাগ, সংবিধিবদ্ধ কর্তৃপক্ষ বা ‘স্ট্যাটুটরি অথোরিটিজ’, নিয়ন্ত্রক কর্তৃপক্ষ বা ‘রেগুলেটরি অথোরিটিজ’, তফসিলি বাণিজ্যিক ব্যাঙ্ক বা ‘সিডিউল কমার্শিয়াল ব্যাংকস’, পাবলিক সেক্টর আন্ডারটেকিং অথবা পাবলিক ফাইন্যান্সিয়াল ইনস্টিটিউশন দ্বারা জারি করা হয়।
  • একজন গেজেটেড অফিসারের লেখা একটি চিঠি এবং তার সাথে ব্যক্তির সই সহ একটি ছবি।
  • আবেদনকারীর ঠিকানার কোনো পরিবর্তন হলে সেক্ষেত্রে নতুন ঠিকানায় অ্যাকাউন্ট স্থানান্তর করার জন্য আবেদনকারীকে বৈধ নথি জমা দিতে হবে।
  • এছাড়া দুটি পাসপোর্ট সাইজের ছবি লাগবে।

এছাড়া আরও একটি উপায় আছে সেটি হলঃ

যাদের ‘অফিসিয়ালি ভ্যালিড ডকুমেন্টস’ (OVD) নেই তাদের জন্য রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া ২০১৪ সালে এটা নিদিষ্ট করে যে তারা ব্যাঙ্কে “ছোট অ্যাকাউন্ট” খুলতে পারবেন। 

একটি “ছোট অ্যাকাউন্ট” একজন ব্যক্তি একটি স্ব-প্রত্যয়িত/সেলফ-এটাস্টেড ছবি এবং ব্যাঙ্কের কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে তার স্বাক্ষর বা থাম্ব প্রিন্টের ভিত্তিতে খুলতে পারেন। তবে এর বৈশিষ্ট হোল যে এই ধরনের অ্যাকাউন্টগুলিতে বছরে মোট ১ লক্ষ টাকার বেশি ক্রেডিট হবে না ও এক মাসে মোট উত্তোলন ১০,০০০ টাকার বেশি হবে না এবং অ্যাকাউন্টে ব্যালেন্স কোনও সময়েই ৫০,০০০ টাকার বেশি হবে না।

এই অ্যাকাউন্টগুলির বৈধতা ১ বছর হয়ে থাকে। তবে অ্যাকাউন্ট-ধারক যদি কোন নথি প্রদান করেন যে তিনি অফিসিয়ালভাবে বৈধ নথির জন্য আবেদন করেছেন তবে সেক্ষেত্রে আরও ১ বছর অ্যাকাউন্টটি চালু রাখার অনুমতি দেওয়া হবে।

প্রধানমন্ত্রী জন ধন যোজনা যোগ্যতা

PMJDY অ্যাকাউন্ট খোলার জন্য নিম্নলিখিত যোগ্যতাগুলি আবশ্যিকঃ

  • আবেদনকারী কে ভারতের নাগরিক হতে হবে।
  • আবেদনকারীর বয়স ১০ বছরের বেশি হতে হবে।
  • আবেদনকারীর নামে কোন ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থাকবে না।

প্রধানমন্ত্রী জন ধন যোজনা সম্পর্কিত প্রশ্ন (FAQ)

প্রধানমন্ত্রী জন ধন যোজনার অধীনে কি কি সুবিধা পাওয়া যায়?

PMJDY অ্যাকাউন্টে ওভারড্রাফ্ট, জীবন বীমা, রুপি কার্ড, জিরো ব্যালেন্স, মোবাইল ব্যাংকিং, ছোট অ্যাকাউন্ট ও অ্যাকাউন্ট স্থানান্তরের সুবিধা পাওয়া যায়।

PMJDY জীবন বীমা কভারেজের পরিমাণ কত?

এই যোজনার অ্যাকাউন্টের সাথে ৩০,০০০ টাকার জীবন বীমা কভারেজ এবং দুর্ঘটনার ক্ষেত্রে ২ লক্ষ টাকা কভারেজ প্রদান করে।

জন ধন যোজনায় কত ঋণ পাওয়া যায়?

এই যোজনায় যাদের অ্যাকাউন্ট আছে তাদের সরকার ১০০০০ পর্যন্ত ওভারড্রাফ্ট সুবিধা প্রদান করে।

PMJDY তে কখন ঋণ নেওয়া যাবে?

এই যোজনায় অ্যাকাউন্ট খোলার ৬ মাসের পর সর্বাধিক ১০০০০ পর্যন্ত ঋণ নেওয়া যাবে।

প্রধানমন্ত্রী জন ধন যোজনায় ১ মাসে কত টাকা জমা ও তোলা যায়?

PMJDY তে ১ মাসে সর্বাধিক ১০,০০০ টাকা জমা ও উত্তোলন করা যায়।

PMJDY অ্যাকাউন্টে মোট কত জমা করা যায়?

এই স্কিমের অ্যাকাউন্টে সর্বাধিক ১,০০,০০০ টাকা জমা করা যায়।

প্রধানমন্ত্রী জন ধন যোজনা অ্যাকাউন্ট কি অনলাইনে খোলা যায়?

আপনি সরকারী ওয়েবসাইট বা ব্যাঙ্কগুলির ওয়েবসাইট থেকে অথবা প্রধানমন্ত্রী জন ধন যোজনা ফর্ম লিঙ্কে ক্লিক করে আবেদনপত্র ডাউনলোড করতে পারেন। তারপর তা প্রিন্ট আউট ও পূরণ করে, প্রয়োজনীয় নথিপত্র সহ ব্যাঙ্কে জমা দিতে পারেন৷

জন ধন যোজনা অ্যাকাউন্ট এবং সাধারণ অ্যাকাউন্টের মধ্যে পার্থক্য কী?

দুটি অ্যাকাউন্টের মধ্যে পার্থক্য হল যে জন ধন অ্যাকাউন্টটি স্কিমের অধীনে খোলা হয়, কিন্তু বেসিক সেভিংস অ্যাকাউন্টগুলি তা হয় না। এছাড়াও, জন ধন অ্যাকাউন্টটি অন্যান্য বিভিন্ন সুবিধা প্রদান করে যেমন দুর্ঘটনা বীমা কভার ২ লক্ষ টাকা এবং ১০,০০০ টাকা পর্যন্ত ওভারড্রাফ্ট সুবিধা যা সাধারন অ্যাকাউন্টের সাথে পাওয়া যায় না।

আরও পড়ুনঃ

Leave a Comment